ট্রি টপোলজি কি? {What is a Tree Topology?}

 ট্রি টপোলজি {Tree topology}হল একটি বিশেষ ধরনের কাঠামো যেখানে অনেকগুলি সংযুক্ত কম্পিউটার একটি গাছের শাখার মতো সাজানো থাকে। উদাহরণস্বরূপ ট্রি টপোলজিগুলি সাধারণত ডাটাবেস এবং কর্পোরেট নেটওয়ার্কগুলিতে ও ওয়ার্কস্টেশনগুলিতে ডেটা সাজানোর জন্য ব্যবহৃত হয়।। এই ট্রি টপোলজি অনেকটা স্টার এবং বাস টপোলজির মত।

কম্পিউটার নেটওয়ার্কে ট্রি টপোলজি কখনও কখনও স্টার বা বাস টপোলজি হিসাবে পরিচিত হয় কারণ এটি একটি গাছের মতো গঠন তৈরি করতে স্টার এবং বাস টপোলজির উভয়ের বৈশিষ্ট্যকে একত্রিত করে তোলে। এই টপোলজিতে প্রতিটি শাখায় স্টার নেটওয়ার্ক রয়েছে এবং এর মূল কাঠামোটি বাস ব্যাকবোন ক্যাবলের আকারে ডিজাইন করা হয়েছে। অতএব প্রাইমারি বাসটি এক বা একাধিক বাস এবং সুইচের সাথে সংযুক্ত থাকে যা আরও এক বা একাধিক নেটওয়ার্ক ডিভাইস এবং নেটওয়ার্ক নোডের সাথে সংযুক্ত করে থাকে। এটি একটি অত্যন্ত ফ্লেক্সিবল কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং পদ্ধতি যা আপনাকে একটি গাছের প্রতিটি শাখায় স্টার নেটওয়ার্ককে বিস্তৃত করে এই নেটওয়ার্কে নেটওয়ার্ক ডিভাইস যুক্ত করতে সাহায্য করে।

 {tocify} $title={Table of Contents}

ট্রি টপোলজি কি? {What is a Tree Topology?}

ট্রি টপোলজির বৈশিষ্ট্য!

  • আপনি যদি ট্রি টপোলজিতে একটি নির্দিষ্ট জায়গায় অনেক কম্পিউটার যোগ করতে চান তাহলে আপনি প্রধান ব্যাকবোন কেবলের সাথে সংযুক্ত স্টার নেটওয়ার্কগুলিকে প্রসারিত করে এটি করতে পারেন।
  • নেটওয়ার্কের একটি কম্পিউটার কাজ না করলে এটি সমগ্র কম্পিউটার নেটওয়ার্কের অপারেশনকে ক্ষতি করবে না। ফলস্বরূপ, এটি আরও সহনশীল এবং ভরসাযোগ্য।
  • একটি সুইচ বা ইন্টেলিজেন্ট হাব ব্যবহারের কারণে এর নেটওয়ার্ক কর্মক্ষমতা বেশ ভালো হতে পারে।
  • ট্রি টপোলজি সত্যিই আপনার ছোট আকারের LAN (লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক) জন্য একটি ভাল অপশন।
  • ট্রি টপোলজি উপরন্তু নিরাপত্তা দিয়ে থাকে যা ইন্টেলিজেন্ট হাব ব্যবহার করে নিরাপত্তা ভালো করা যেতে পারে।

ট্রি টপোলজির সুবিধা! 

নিচে কিছু ট্রি টপোলজির সুবিধা সম্পর্কে আলোচনা করা হলোঃ 

  • ট্রি টপোলজি প্রধানত ব্রডব্যান্ড ট্রান্সমিশন প্রদানের জন্য ব্যবহৃত হয়। 
  • আমরা বর্তমান নেটওয়ার্কে নতুন ডিভাইস যোগ করতে পারি। অতএব, আমরা বলতে পারি যে ট্রি টপোলজি সহজেই প্রসারণযোগ্য।
  • ট্রি টপোলজিতে পুরো নেটওয়ার্কটিকে স্টার নেটওয়ার্ক নামে পরিচিত সেগমেন্টে বিভক্ত করা হয় যা সহজেই পরিচালনা এবং যত্ন করা যায়।
  • ট্রি টপোলজিতে ত্রুটি খুজে বেরকরা  এবং ত্রুটি সংশোধন করা খুব সহজ।
  • একটি স্টেশনে ব্রেকডাউন পুরো নেটওয়ার্ককে ক্ষতি করে না।
  • ট্রি টপোলজিতে আলাদা আলাদা বিভাগের জন্য পয়েন্ট-টু-পয়েন্ট ওয়্যারিং আছে।

ট্রি টপোলজির অসুবিধা!

নিচে কিছু ট্রি টপোলজির অসুবিধা সম্পর্কে আলোচনা করা হলোঃ 

  • যদি নোডে কোনো ত্রুটি দেখা দেয় তাহলে সমস্যাটি সমাধান করা কঠিন হয়ে পড়ে।
  • ব্রডব্যান্ড ট্রান্সমিশনের জন্য প্রয়োজনীয় এবং দরকারি ডিভাইসগুলি খুব দামি বা ব্যয়বহুল।
  • একটি ট্রি টপোলজি প্রধানত মেন বাস তারের উপর নির্ভর করে এবং মেন বাস তারের ব্যর্থতা সমস্ত নেটওয়ার্ককে ক্ষতিগ্রস্ত করে তুলবে।
  • ট্রি টপোলজিতে যদি  কোন নতুন ডিভাইস যুক্ত করা হয় তাহলে পুনরায় কনফিগার করা কঠিন হয়ে পড়ে।
  • ডিভাইসগুলির মধ্যে একটি নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য এটির প্রচুর পরিমাণে নেটওয়ার্ক কেবল প্রয়োজন, যা পরিচালনা করা এবং কনফিগার করা কঠিন।
  • যদি টার্মিনেটর কোন ধরনের সমস্যা পায় তাহলে এটি সংকেত প্রতিফলিত করতে পারে। তাই প্রতিটি পয়েন্টে আপনাকে টার্মিনেটরের খুব যত্ন নিতে হবে।

নবীনতর পূর্বতন